1. news.sondhan24@gmail.com : Masudur Rahman : Masudur Rahman
  2. reporternahidtkg@gmail.com : Nahid Reza : Nahid Reza
  3. jmitsolutionbd@gmail.com : jmmasud : jmmasud Sheikh
গোপালগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা তুষার হত্যাকান্ডের ১৬তম বার্ষিকী আজ - Sondhan24
মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০, ০৭:১০ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
সন্ধান২৪ এর পক্ষ থেকে সবাইকে স্বাগতম। করোনা ভাইরাস রোধে নিয়মিত সাবান দিয়ে হাত পরিস্কার করুন এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। ধন্যবাদ
শিরোনাম :
শেখ ফজিলাতুন্নেছার জন্মদিনে ঠাকুরগাঁওয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের গাছের চারা বিতরণ মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফেরানোর প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়ার সার্ভিস প্রোভাইডাররা অপব্যবহারের দায় এড়াতে পারে না : তথ্যমন্ত্রী সিনহা হত্যায় ওসি প্রদীপসহ ৯ জন কক্সবাজার আদালতে মুকসুদপুরে পানিতে ডুবে কৃষকের মৃত্যু ডিইউজি’র সাংগঠনিক সম্পাদকের উদ্যোগে গোপালগঞ্জে সাংবাদিকদের মাঝে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু ইতিহাসের মহানায়ক -রমেশ চন্দ্র সেন গোপালগঞ্জে ভোগান্তি বাড়ছে ১০ গ্রামের বানভাসিদের গোপালগঞ্জে বাসের ধাক্কায় এক নারী নিহত গোপালগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা তুষার হত্যাকান্ডের ১৬তম বার্ষিকী আজ

গোপালগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা তুষার হত্যাকান্ডের ১৬তম বার্ষিকী আজ

  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০, ৫.৫১ পিএম
  • ১৪ জন সংবাদটি পড়েছেন।

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রাকিব হোসেন তুষার হত্যাকান্ডের ১৬তম বার্ষিকী আজ। দীর্ঘ ১৬ বছর অতিবাহিত হলেও এ হত্যাকান্ডের বিচার হয়নি।এ সংক্রান্ত মামলাটি এখন হাই কোর্টে স্ট্রে অবস্থায় রয়েছে।

দিনটি পালন উপলক্ষে পরিবারের পক্ষ থেকে গোপালগঞ্জ শহরের মিয়াপাড়া জামে মসজিদে জুম্মাবাদ দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। তবে করোনার কারনে দলীয় কোন কর্মসূচী হাতে নেয়নি স্থানীয় আওয়ামী লীগ।

বিগত ২০০৪ সালের এই দিনে বাস ধর্মঘটের সময় বাস চলাচল নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত মালিক-শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়। এসময় পুলিশের গুলিতে রাকিব হোসেন তুষার নিহত হন। তখন নিহতের ছোট ভাই আরিফ হোসেন জুয়েল বাদি হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

দীর্ঘ দিনেও এ হত্যাকান্ডের বিচার না হওয়ায় পরিবারের পক্ষ থেকে ক্ষোভ জানানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার বাদি আরিফ হোসেন জুয়েল বলেন, বিএনপির সময় মামলাটি হাইকোর্টে বদলী করা হয়। এরপর মামলাটি স্ট্রে অবস্থায় রয়েছে। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ দলীয় নেতা কর্মীদের উল্লেখযোগ্য কোন হস্তক্ষেপ না থাকায় মামলাটি হাইকোর্টেই পচে মরছে। আমি আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে বর্তমান সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি দ্রুত এই হত্যাকান্ডের সাথে যারা জড়িত তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালের ৩১ জুলাই বাস চলাচল নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত মালিক শ্রমিক ও পুলিশ ত্রিমুথী সংঘর্ষ হয়। এসময় পুলিশের গুলিতে রাকিব হোসেন তুষার নিহত এবং বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর এপিএস-২ ও সাবেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদকসহ অর্ধশত আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী আহত হয়। এ ঘটনায় তৎকালীন ওসি আয়ুউবসহ বিএনপির ৪৭ নেতা-কর্মীর নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020
Design & Development by : JM IT SOLUTION